1. admin@protidinercoxbazar24.com : admin :
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০২:৩৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
চকরিয়া মাতামুহুরী নদীর পানি থেকে রক্ষা পেতে স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করছে চকরিয়া প্রবাসী ইউনিয়ন রামুতে সহস্রাধিক পরিবার পানিবন্দী সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন💬 খুরুশকুল ৬নং ওয়ার্ড বাসী কে ঈদ-উল-আযাহর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোঃ রুবেল। প‌বিত্র ঈদ-উল- আযহার শু‌ভেচ্ছা জা‌নি‌য়ে‌ছেন (সাংবাদিক) মোহাম্মদ জয়নাল চকরিয়ায় গ্রাহকের সাথে ভয়ংকর প্রতারণায় কন্টিনেন্টাল কুরিয়ার সার্ভিস দেশবাসীকে ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রিয়াংকা জামান কক্সবাজার জেলা বাসীকে মোঃ ইসমাইল সিআইপির ঈদের শুভেচ্ছা 🔮 চকরিয়া প্রবাসী ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা দুলালের ঈদের শুভেচ্ছা 🧿 চকরিয়া প্রবাসী ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা জাফর আলমের ঈদের শুভেচ্ছা 🔮 চকরিয়া প্রবাসী ইউনিয়নের সৌদিয়া শাখার সভাপতি মিজান বাঙ্গালীর ঈদের শুভেচ্ছা 🔮

বঙ্গবন্ধুর নুর আহমেদের প্রতি এ প্রজন্মের ভালবাসা- আনিসুল ইসলাম |protidiner Coxbazar

আনিসুল ইসলাম - সভাপতি বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগ উখিয়া উপজেলা
  • সময় : রবিবার, ১৬ মে, ২০২১
  • ১৯৪ বার পঠিত

বঙ্গবন্ধুর”নুর আহমদের” প্রতি এই প্রজন্মের ভালোবাসাঃ
।।আনিসুল ইসলাম।।

মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর, বরেণ্য রাজনীতিবীদ এড. নুর আহমদ ছিলেন পাকিস্তান আমলে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কক্সবাজার মহকুমা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সাধারন সম্পাদক। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের উত্তাল দিনগুলোতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর অত্যচার ও রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে দখলদার ও সাম্রাজ্যবাদী পাকিস্তানী শাসক গোষ্ঠীর কবল থেকে বাঙালি জাতিকে মুক্ত করে আনবার লক্ষ্যে এই জনপদে বঙ্গবন্ধুর সমাজ পরিবর্তনের যে সংগ্রামী স্বপ্ন, সে স্বপ্ন ধারন করে তিনি এ জনপদের তরুণ প্রজন্মকে একত্রিত করে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সম্পর্কে তরুণ প্রজন্মকে উজ্জীবিত করে এ অঞ্চলকে আওয়ামীলীগের শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত করেছিলেন।

পেশায় আইনজীবী হলেও ১৯৬৪ সালে এড. নুর আহমদ বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সক্রিয় আওয়ামীলীগ রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। রাজনৈতিক চিন্তা -চেতনা,সততা, নিষ্ঠা, নীতি ও নৈতিকতায় সর্বোচ্চ অবস্থানে থাকা এই মানুষটিকে বঙ্গবন্ধু কক্সবাজার মহকুমা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেন।

সংগঠনের দায়িত্ব নিয়ে তিনি এ জনপদের মানুষের মাঝে বঙ্গবন্ধুর অনুপ্রেরণায় বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামীলীগের রাজনীতির মূলমন্ত্র তথা বঙ্গবন্ধুর সমাজ পরিবর্তনের দর্শন প্রচারের মাধ্যমে এ অঞ্চলে তিনি ব্যাপক পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা লাভ করেন।ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাওয়া এড.নুর আহমদ এক পর্যায়ে বঙ্গবন্ধুর নুর আহমদ হিসেবে আবির্ভূত হন এবং কক্সবাজারের প্রতিটি অঞ্চলে বঙ্গবন্ধুর নুর আহমদ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন।

সে সময়কার তরুণ নেতা এড.নুর আহমদ বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে কক্সবাজারের প্রতিটি অঞ্চলে আওয়ামীলীগকে শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে গড়ে তুলেছিলেন। বাঙ্গালীর মুক্তির সনদ ছয় দফার পক্ষে তিনি জনমত গঠনে এ অঞ্চলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

দারুণ সাংগঠনিক দক্ষতা ও তরুণ প্রজন্মকে সাথে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দর্শন প্রচারের মাধ্যমে এ অঞ্চল কে আওয়ামীলীগের শক্ত ঘাটি হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করায় বঙ্গবন্ধু ১৯৭০ সালের জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে এড. নুর আহমদ কে নৌকা প্রতীকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন দেন।

১৯৭০ সালে অনুষ্ঠিত তৎকালীন জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামিলীগের প্রার্থী হয়ে পাকিস্তান সরকারের কেন্দ্রীয় শ্রম মন্ত্রী মুসলিম লীগের প্রভাবশালী নেতা মৌলভী ফরিদ আহমদ কে বিপুল ভোটে পরাজিত করে বর্তমান কক্সবাজারের চারটি আসন নিয়ে গঠিত তৎকালীন একটি মহকুমায় এমএনএ হওয়ার গৌরব অর্জন করেন।

১৯৩৮ সালে জন্ম নেয়া আমৃত্যু মুজিবাদর্শে বিশ্বাসী এই আওয়ামীলীগ নেতা কক্সবাজার জেলার টেকনাফ উপজেলার কচুবনিয়া গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬০ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেক রাষ্ট্র বিজ্ঞানে বি এ অনার্স ও ১৯৬১ সালে এম এ ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীতে এলএলবি সম্পন্ন করে ১৯৬৬সালে কক্সবাজার বারে যোগদান করে তার পেশাগত জীবন শুরু করেন। তিনি একাধিকবার কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের এই অঞ্চলের প্রধান সংগঠক এড. নুর আহমদ ছিলেন,মুক্তিযুদ্ধে মহকুমা সংগ্রাম কমিটির সাধারন সম্পাদক ও বাংলাদেশের সংবিধান রচনা কমিটির অন্যতম সদস্য।

স্বাধীনতার ৫০ পরে এসে আজকে উখিয়া টেকনাফে রাজনৈতিক সংকট চলছে। কেননা আজকে প্রায় সময় বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় যখন ইয়াবা ব্যবসার নেপথ্যে এ জনপদের প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধিদের নাম খবরের কাগজের পাতায় শিরোনাম হয়। বাংলাদেশের পার্লামেন্টে যখন কোন সাংসদ কে বলতে দেখি “”মাননীয় স্পীকার মাদকের গডফাদার তো এই মহান সংসদের ভেতরই রয়েছে ”

১৯৭১ সালে ৭ ই মার্চে বঙ্গবন্ধু রের্সকোর্স ময়দানে দাড়িয়ে স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন সেই মঞ্চে কক্সবাসীর পক্ষ থেকে প্রতিনিধিত্ব করে বাংলাদেশের ইতিহাসের স্বাক্ষী হয়েছিলেন আমাদের গর্বিত সন্তান এড. নুর আহমদ। আজকে উখিয়া টেকনাফে রাজনৈতিক সংকট কালীন সময়ে আরেকজন এড.নুর আহমদ আমাদের বড় প্রয়োজন।

বাংলাদেশের মিডিয়াগুলো বলেছিল সরকারের স্বদিচ্ছা থাকা সত্বেও কতিপয় প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধির কারণে উখিয়া টেকনাফে মাদক বন্ধ করা যাচ্ছে না, তখন সেটি ছিল আমাদের জন্য অত্যন্ত লজ্জাজনক ও অপমানকর। আজকে উখিয়া টেকনাফকে মাদক ও জঙ্গিবাদমুক্ত নেতৃত্বের কবল থেকে বেরিয়ে আসতে হলে এড.নুর আহমদের মত একজন আদর্শবান নেতার জীবন থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। কিছু আওয়ামীগ নেতাদের আমারা দেখেছি কোটি কোটি টাকার লোভে মৌলবাদী জঙ্গি গোষ্ঠীর অবৈধ অর্থ নিয়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের ক্ষতি হয় এরকম গর্হিত কাজ করা নেতারা যখন কোটি কোটি টাকার মিশন নিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর মনোনয়ন চান—– তখন আমাদের এড.নুর আহমেদ সাহেবদের মনে পড়ে যায়। প্রশ্ন জাগে এ জন্যই কি নুর আহমদ সাহেব রা আওয়ামীলীগ কে এ জনপদে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন???

আজকে এই সংগ্রামী নেতার ১০ম মৃত্যুবার্ষিকীতে তাহার স্মৃতির প্রতি ও তার পরিবারের সদস্যদের আমাদের সেরা শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা থাকবে। আমরা আশা করছি তারই যোগ্য উত্তরাধিকার কক্সবাজার জেলা যুবলীগের সংগ্রামী সভাপতি ও জেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের সাধারণ সম্পাদক উখিয়া টেকনাফের আগামী দিনের আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতীক জননেতা সোহেল আহমদ বাহাদুর তার পিতার আদর্শ নিয়ে এগিয়ে যাবেন এমনটাই প্রত্যাশা করছি।।

লেখক
সভাপতি -বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগ।
সাধারণ সম্পাদক -বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন,উখিয়া উপজেলা।
উখিয়া প্রতিনিধি -দৈনিক তৃতীয় মাত্রা।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

ফেসবুকে আমরা